অপরাধ

পরকীয়া করতে এসে ধরা পুলিশ

2020/08/post_thumb-2020_08_30_14_22_22.png

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এক প্রবাসী স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া করতে এসে জনতার হাতে ধরা পড়েন এক পুলিশ সদস্য। বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে হাটহাজারী পৌরসভার ইস্টার্ন আবাসিক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় স্থানীয় জনতা প্রবাসীর স্ত্রী ও পুলিশ সদস্যকে মারধর করেন। বর্তমানে প্রবাসীর স্ত্রী চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে এবং পুলিশ সদস্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছেন বলে জানা গেছে।

পরকীয়া করার অভিযোগে জনতার হাতে আটক ওই পুলিশ সদস্যের নাম রিমন চৌধুরী (২৪)। তিনি চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইনে কর্মরত আছেন বলে থানা পুলিশ সূত্র নিশ্চিত করেছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, স্বামী মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসী ওই নারী তার ৮ বছরের একটি কন্যাসন্তান ও ৫ বছরের একটি পুত্রসন্তান নিয়ে পৌরসভার ইস্টার্ন আবাসিক এলাকায় ভাড়া থাকেন।

দীর্ঘদিন যাবত মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে একই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড এলাকার রসিক চৌধুরীবাড়ির নৃপতি চৌধুরীর পুত্র পুলিশ সদস্য রিমন চৌধুরীর পরকীয়া চলছে।

বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ সদস্য রিমন চৌধুরী ওই বাসায় যান। স্থানীয়রা বিষয়টি জানতে পেরে ওই নারীর স্বামী ও ভাসুরদের খবর দেন। এ সময় স্থানীয়রা প্রবাসীর স্ত্রীসহ অবৈধ প্রেমিককে উত্তম-মাধ্যম দেন। এছাড়া পর দিন সকালে ৯৯৯-এ হেল্প লাইন নম্বরে ফোন করে বিষয়টি অবহিত করেন।

হেল্প লাইনে খবর পেয়ে হাটহাজারী মডেল থানার এসআই ইউনুস মিয়া ও এএসআই জহির সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ওই পুলিশ সদস্য ও প্রবাসীর স্ত্রীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এরপর প্রবাসীর স্ত্রীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে এবং পুলিশ সদস্যকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়।

বর্তমানে তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে নিশ্চিত করেন এসআই ইউনুস মিয়া।

এদিকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে হাটহাজারী মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ মাসুদ আলম যুগান্তরকে বলেন, পরকীয়ায় লিপ্ত থাকায় রিমন চৌধুরী নামে এক যুবক ও প্রবাসীর স্ত্রীকে পৌরসভার ইস্টার্ন আবাসিক এলাকা থেকে আনা হয়েছে। এ ঘটনায় কোনো পক্ষের কেউ অভিযোগ দায়ের করেননি। তবে অভিযোগ পেলে তদন্তসাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য