প্রচ্ছদ

নিজামীর নামফলকে ‘শহীদ’ শব্দ ঢেকে দিল ছাত্রলীগ, ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

2020/08/post_thumb-2020_08_22_11_55_59.png
জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমির ও কথিত যুদ্ধাপরাধ মামলায় ফাঁসি কার্যকর হওয়া মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর কবরের নামফলক থেকে ‘শহীদ’ শব্দটি ঢেকে দিয়েছে ছাত্রলীগ। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

শুক্রবার (২১ আগস্ট) সাঁথিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসিবুল খান সানা ‘শহীদ’ শব্দটি কালো কালি দিয়ে ঢেকে দেয়। এরপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিলে এর তীব্র প্রতিবাদ জানায় স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) রাতে তিনি সাঁথিয়ার ধোপাদহ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতৃত্বে উপজেলার ধোপাদহ ইউনিয়নের মনমথপুর গোরস্থানে নিজামীর কবরে স্থাপিত নামফলকে শহীদ শব্দটি মুছে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগ নেতা হাসিবুল খান সানা জানান, বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে ধোপাদহ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে নিজামীর নিজগ্রাম মনমথপুর গোরস্থানে তার নামফলক থেকে শহীদ শব্দটি মুছে দেয়া হয়েছে।

অথচ বিষয়টি অবগত নন বলে জানান সাঁথিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আব্দুল লতিফ।

এ ব্যাপারে বেড়া উপজেলা জামায়াতের আমির ডা. আব্দুল বাসেত বলেন, একজন মৃত মানুষের কবরে গিয়ে তার নামফলক থেকে শব্দ মুছে দেয়া অত্যন্ত গর্হিত কাজ। তিনি এ কাজের তীব্র নিন্দা জানান।
 
এদিকে ছাত্রলীগ নেতার এই স্ট্যাটাস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ক্ষোভ জানান অনেকেই। তারা বলছেন, ক্ষমতাসীন সরকার মিথ্যা মামলা দিয়ে মাওলানা নিজামীকে ফাঁসির দড়িতে ঝুলানো হয়েছে। শুধু এই করে তারা ক্ষ্যন্ত হয়নি বাংলাদেল জামায়াতে ইসলামীর বিভিন্ন নেতাদেরকে কারাগারে বন্দী করে নির্যাতন করেছেন। একদিন এর বিচার হবে। 

উল্লেখ্য, মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী ১৯৯১ এবং ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনে পাবনা-১ আসনে এমপি নির্বাচিত হন। চারদলীয় জোট সরকারের সময় তিনি কৃষি ও শিল্প মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৬ সালের ১১ মে তার ফাঁসি কার্যকর করা হয়।

মন্তব্য